সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৮:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নন্দীগ্রামে ভিজিডি’র চাল বিতরণ বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কুটক্তি;প্রতিবাদের মুখে শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সা.সম্পাদকের পদত্যাগ জয়পুরহাটের কালাইয়ে ৫টি ইউপিতে আওয়ামীলীগের জয় দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচনে নির্বাচিত হলেন যারা বগুড়ার ধুনটের ১০ ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচনে নির্বাচিত হলেন যারা নওগাঁয় শীতবস্ত্র বিতরন নবাবগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচনে নির্বাচিত হলেন যারা কাহালুতে আমন ধান, চাল সংগ্রহের উদ্বোধন কাহালুর পাইকড় আড়োলা খেলার মাঠে চেয়ারম্যান প্রার্থী মিটু চৌধুরীর নির্বাচনী জনসভা অনুষ্ঠিত শিবগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় পঙ্গুত্ববরণকারী সাজুর পাশে দাড়ালেন নিসচা নেতৃবৃন্দ 

বগুড়ায় নদী নৌকার বর্নিল আন্দময়তায় বাইচ উৎসব;হাজারো প্রানের হর্ষধ্বনি

সংবাদ দাতা:
  • সময় : বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১২০ দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার,বগুড়া নিউজ লাইভ ডটকমঃ-

আবহমান বাংলার চিরায়িত গ্রামীন ঐতিহ্যের এক মোহনীয় ক্যানভাস হয়ে উঠেছিলো বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার প্রত্যন্তগ্রাম। নদী নৌকার অপুর্ব মিলন মেলার ক্যানভাসের চিত্রকার ছিলেন গ্রামীন জনপদের সাধারণ মানষ। সবুজের সমারহে নাড়ির মতো নদীরটানে বাইচ মেলাকে কেন্দ্র করে উৎসবের আবির ছড়িয়ে আনন্দময়তায় ভরে ওঠে বগুড়ার অচেনা গ্রাম নারিল্যা, খাউরা, জালশুকা জুজখোলাইতালী গ্রাম। খাউরা খাল নামের নদীতে এই বাইচ প্রতিযোগিতা দেখাতে ছুটে আসেন আসে ৪ উপজেলার  অর্ধশতাধিক গ্রামের বিভিন্ন শ্রেনী ও নানা বয়সী মানুষ । সোনার বাংলা থেকে সোনারতরি সব কিছুই ছিলো বাইচ মেলা নামে নৌকাবাইচের এই প্রতিযোগীয়। বাইচ মেলা শুধু আনন্দ নয়, গ্রামীন জনপদের এক অকৃত্রিম বন্ধনে জড়িয়ে নেয় নদী ধারের মানুষদের। নদীরদু’কুল ভরে যায় হাজারো প্রানের হর্ষধনীতে।

নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা গ্রামীন বাংলার এক অতি পরিচিত আয়োজন। বাঙালী সংস্কৃতির এক অন্যতম অনুসঙ্গ। অনুপম সৌন্দযের্য প্রকৃতির ক্যানভাসে যার মোহনীয় ডাক শুধু ঐতিহ্যনয়, গ্রামীন জনপদে এক আনন্দের প্রতিক। যা প্রতিযোগীতানামের আয়োজনের সীমানায় আটকে না থেকে উৎসবের বর্ণিল ছোঁয়ায় আলোকিত করে গ্রামীন ঐতিহ্য আর ঐক্যের সুরের কথা।

বগুড়া শহর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দুরের গ্রাম নারিল্যার পাশদিয়ে বয়ে গেছে খাউরা নামে খাল। শুকনো মৌসুমে এটি খাউরারদহনামে পরিচিতি। ঋতুর বৈচিত্রতায় বর্ষা মৌসুমে এটি খাল থেকেনদীতে রূপ নেয়। খেউরাদহ ব্রীজের নিকট থেকে নারিল্যা গ্রামের ব্রীজপর্যন্ত বুধবার আয়োজন করা হয় নৌকা বাইচের। প্রায় দু’কিলোমিটারের এই প্রতিযোগী স্থলের দু পাশে আশেপাশের অন্ততঃঅর্ধশতাধিক গ্রামের নারী শিশু তরুন থেকে বৃদ্ধ সব বয়সের মানষভিড় জমায়।

মেলার আয়োজক কমিটির মামমুনর রশিদ জানালেন, খেউরাদহ খাল হলেওএটি মিলেছে পাশের ধুনট উপজেলার বিলচাপড়ি গ্রামে বাঙালীনদীতে। সবুজের সমারহের মাঝে একেঁ বেঁকে চলা এই খাল বষার্মৌসুমে এক আবেদনময়ী নদীর রূপ নিয়ে আর্বিভাব নেয়।শাজাহানপুর উপজেলার জালশুকা, নারিল্যা, ও জুজ খোলা গ্রাম সমন্বয় করে প্রতি বছর আয়োজন করা হয় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার।সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত চলে এই নৌকা বাইচ।

এ নিয়ে নদীর দুপাশের গ্রাম গুলোতে সাজসাজ রব পড়ে যায়। শাজাহানপুর ছাড়াও পাশের গাবতলি, সারিয়াকান্দি, শেরপুর ও ধুনট উপজেলা থেকে বাইচেরনৌকা ও এসব এলাকার বিভিন্ন গ্রামের লোকজন দেখতে আসেন এই প্রতিযোগিতা। নদীর এক পাশ শাজাহানপুর উপজেলার খোট্টাপাড়াইউনিয়নের নারিল্যা- খেউরা আর অন্যপাশে গাবতলির নশিপুর গ্রামেরইতালি গ্রাম। বাইচের মেলা উপলক্ষে আশে পাশের গ্রাম গুলোতে২/১দিন আগে থেকে উৎসবের আমেজ তৈরী হয়। নৌকা বাইচ উপলক্ষেরগ্রামে গ্রামে অতিথিদের পদচারনরায় পুর্ণ হয়ে ওঠে। বেশির ভাগ বাড়িতেই মেয়ে জামাই আসেন শ্বশুড় বাড়ির আতিথিয়তা গ্রহনকরতে।

নারিল্যা পুর্বপাড়া গ্রামের মাজেদা বেগম স্বামী সন্তান ওনাতিসহ পরিবারের ৭ জনকে নিয়ে এসেছেন নৌকা বাইচ দেখতে।তিনি জানালেন দু ’দিন আগে মেয়ে এসেছেন নাতিকে নিয়ে বাইচের মেলা উপলক্ষে।  দুপুরেও পুরো পরিবার নদীর ধারে দেখছেন উৎসব। মাজেদার স্বামী ভ্যান চালক রায়হান গ্রামের এই উৎসবে রকারনে কাজে জাননি। একই রকম তথ্য মিলেছে নুরুল ইসলাম আইয়ুবও শাহিনের নিকট থেকে ৩ জনই শ্রমিক। বাইচ উপলক্ষে কাজে যাননি।এসেছেন নৌকা বাইচ উৎসবে।

শুধু এই শ্রমিকরা নন ধুনট উপজেলাকালের পাড়া থেকে এসছেন বৃদ্ধা বজুরা খাতুন(৮০) বয়সের ভাড়েনুইয়ে পড়লেও নৌকা বাইচ দেখার জন্য এসেছেন। সত্তোর উর্দ্ধ ৪বৃদ্ধ বলু মিয়া, একরাম মন্ডল, সামছুল সরকার ও খালেক মাস্টারএসছেন ১৫ কিলোমমিটার দুরের সারিয়াকান্দি থেকে। উৎসবেরটানেই তারা এসছেন। জানালেন ভ্যান ও পায়ে হেটে তারা এসছেন,আগেও এসছিলেন।বেলা ১১ টা থেকে শুরু হয় নৌকা বাইচ।

এর আগে ভোর থেকে লোকজন আসতে থাকেন নদীর দু’ ধারে। মোট ১৭টি বাইচ দল এতে অংশ নেয়।এরা হলো-আল্লাহর ভরসা, একতা, সোনার বাংলা, সোনারতরি,কিংরাজ, সোনার বাংলা,উড়াল পঙ্খী,তফানতরী, দশেরদোয়া,পঙ্খিরাজ,লালন শাহ, রাখ আল্লাহ মারে কেন, শের ই বাংলা দল। এরবাইরে আরো ৪টি দল থাকলেও রেজিস্ট্রেশনের বাইরে থাকায় তারাপ্রতিযোগিতায় অংশ নিদেত পারেনি।

গ্রুপ ও পর্ব ভিত্তিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।সন্ধ্যায় শেষ হয় বাইচ উৎসব। পুরস্কারছিলো যাড়, বকনা গরু ও ছাগল। জালশুকা, নারিল্যা ও জুজখোলা নৌকাবাইচ কমিটির যুগ্ম আহবায়ক জানালেন, প্রতি বছরই তারা এই মেলা আয়োজন করে থাকলেও করোনার প্রকোপ বেশি থাকায় গতবছর এই উৎসব হয়নি। অনেক দিন পর উৎসবে এবার লোকজনেরসাড়া তাই বেশি ছিলো।

Facebook Comments

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৫৭৬,০১১
সুস্থ
১,৫৪০,৫৯৭
মৃত্যু
২৭,৯৮০
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২২৭
সুস্থ
২৮০
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

পুরাতন সংবাদ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

নামাজের সময় সূচি

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:০৯ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:২৪ পূর্বাহ্ণ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত বগুড়া নিউজলাইভ ২০২০
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102